You are here
Home > Basic Knowledge > টিম ম্যানেজমেন্ট কি, কেন, কিভাবে?

টিম ম্যানেজমেন্ট কি, কেন, কিভাবে?

টিম ম্যানেজমেন্ট
Spread the love

টিম ম্যানেজমেন্ট(Team Management) কি, কেন, কিভাবে?

পুরো টপিক লিখার আগে একটা গল্প বলি।

হলি নিয়ে একটা কাজ আমার দ্বায়িত্বে আসে। প্রথম ক’দিন আমি একা কাজ করার পর বুঝতে পারলাম, সবকিছু একা করতে গিয়ে আমি আমার ক্লাস থেকে পিছিয়ে যাচ্ছি।
যেহেতু তখন ফাইনাল ইয়ার ও ক্লাসের লিডার আমি, তাই কয়েকজনকে ডেকে বুঝিয়ে বললাম এই কাজটা আমার একটা তো সম্ভব হচ্ছে না। কিভাবে কি করা যায়!

লাইব্রেরিতে সবাই একসাথে বলে উঠলো, বৃহস্পতিবার সব হবে।

কেননা ওইদিন আমাদের আইটেম শেষ হয়, সেইসাথে শেষ হয় রবিবার পর্যন্ত চিল করার দিন। আইটেম শেষে আমরা সব কেনাকাটা গুছিয়ে নিলাম। যে কাজ করতে গিয়ে আমি পিছিয়ে যাচ্ছিলাম সেই কাজ সবাই টেকেল দিয়ে ফেলছে মুহুর্তে।
ছোট থেকেই একটা কথা আমরা শুনে এসেছি যে,
দশের লাঠি একের বোঝা।
এই কথাটির মাঝেই সমাধান নিহিত।

টিম ম্যানেজমেন্ট (Team Management)

এখানে টিম কথাটি শুনেই আমরা বুঝতে পারছি একাধিক মানুষের একটা দল। আপনি পিঁপড়া দেখেছেন কেমন দল বেঁধে চলাচল করে। সামনে কিছু পিঁপড়া ঘুরেফিরে যায় আবার আসে, মাঝে কিছু পিঁপড়া খাবার সংগ্রহ করে, পেছনে কিছু পিঁপড়া এমনিতেই ঘুরতে থাকে। আসলে এখানে কেউই অযথা সময় নষ্ট করে না। সবাই যার যার কাজ করে।

টিম ম্যানেজমেন্ট মানেই হলো একজন ব্যাক্তির বুদ্ধিকে কেন্দ্র করে বাকি সবাই মিলে কাজ করে যাওয়া।

এখানে থাকবে –

✍পরিষ্কার দৃষ্টি

আপনি Arifa Khatun আপুকে দেখুন।। ময়মনসিংহ থেকে আপু কাজ করলেও তার সাথে পড়ুয়া ও কর্মঠ আপুকে রেখেছেন মাথা হিসেবে। যেখানে একটা বুদ্ধি আসার সাথে সাথে সবাই মিলে এটা সামাল দেন। মনে আছে হালুয়া ঘাটের তাঁতশিল্পের সন্ধ্যানের কথা? তিনজন মানুষ কাঁদা রাস্তায় গিয়ে সন্ধ্যান পেয়েছিলেন তাঁতশিল্পের। একেই বলে পরিস্কার দৃষ্টি।

✍মান গ্রহণ

আপনি একটা কাজ করবেন বলে প্রস্তাব গ্রহন করলেন। সেটা কেমন হবে একা একা দ্বিধায় আপনি পড়তেই পারেন। তখন যাদের সাথে কথা বলে কাজ করবেন তারা আপনার টিম। একেক জনের মন একেক রকম। বেষ্ট মান রক্ষা করতে সলিউশন আপনাকে নিতে হবে ।

✍দলের শক্তি

যেকোনো বড় একটা কাজ আপনি একা করতে পারবেন না। মনে করুন আরিফা মডেল বিখ্যাত হওয়ার কথা। এখানে ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম Razib Ahmed স্যার ট্রাকেল দিলেও ৬৪ জেলা থেকে যখন উদ্যোক্তারা লিখা শুরু করলেন আমরা খুব অল্প সময়েই এতো কিছু জানতে পারলাম। একটা চেইন গঠন হলো জানার ক্ষেত্রে। এটাই দলের শক্তি।

✍ যোগাযোগ

আমরা যাই করি না কেনো আমাদের যোগাযোগ ব্যবস্থা সচল হতে হবে। উদ্যোক্তারা এপার বাংলা থেকে উপায় বাংলায় তাদের প্রোডাক্ট পাঠাচ্ছে। কারণ যোগাযোগ ব্যবস্থা ভালো।
একটা টিম এমন।
আপনি যখন একটা কাজে এই টপিক গুলো মেনে কাজ করতে যাবেন তখন আপনার কাজটি ম্যানেজমেন্ট এর আওতায় পড়ে যাবে।

যেমন ধরুন একটা গ্রুপ

গ্রুপের এডমিন, মডারেটর একটা টিম গঠন হয়ে যখন একটা গ্রুপকে পরিচালনা করেন তখন এটাই হয় গ্রুপ ম্যানেজমেন্ট।

🔘টিম ম্যানেজমেন্ট কেন দরকার

যখন আপনি একটি সমস্যার সমাধান খুজেঁন তখন কি একাই সমাধান করেন নাকি আপনার কাছের মানুষদের খুজেঁন। যদি খুজেঁ থাকেন তাহলে ঠিক এই কারণেই ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম দরকার।

✍ সমস্যা প্রতিরোধ

প্রতিটি ডিপার্টমেন্টের একজন ডিপার্টমেন্ট অব দ্য হেড থাকে। কারণ কোন একটা নির্দিষ্ট বিষয়ে দক্ষ মানুষ না থাকলে যখন ওই বিষয়ে সমস্যার সমাধান দরকার হবে তখন সমাধান করতে পারবো না।
যার ফলে সমস্ত প্রসেস চেইন ঠিক মতো কাজ করবে না। ছোট একটা কাজ থেকে শুরু করে একটা ডিপার্টমেন্ট অন্য ডিপার্টমেন্টের সাথে উৎপ্রোত ভাবে জড়িত। একটা জায়গায় আটকে যাওয়া মানে পুরোটা অকেজো হওয়া।

✍ অনুপ্রেরণা মূলক পরিকল্পনা তৈরি

ধরুন আপনি লিখে যাচ্ছেন। আপনি যদি দৈনিক লিখে যান তাহলে দেখা যাবে কোনো উৎসাহ না দিয়ে আপনি একদিন থেমে যাবেন। আমরা যখন স্কুলে ফাষ্ট হতাম বা ভালো রেজাল্ট করতাম আমাদের উপহার দেওয়া হতো। এই উপহার টাই ছিলো আমাদের অনুপ্রেরণা তৈরি।
তেমনি ভাবে একটা গ্রুপে সময় মতো তার পরিকল্পনা চেইঞ্জ করে এমন কিছু করতে হবে যেনো একজন লেখক বা একজন কর্মী অনুপ্রাণিত হয়ে আরও বেশি কাজ করার সিদ্ধান্ত নেন।

✍ সঠিক নেতৃত্ব

আমরা বলি Razib Ahmed স্যার সেরা একজন। উনার মতো দ্বিতীয় জন হয় না, সেরা কোচ। এই সব কিছু বলার মধ্যে কিন্তু লুকিয়ে আছে স্যারের নেতৃত্ব। অনেকের জীবনের টার্নিং পয়েন্ট স্যার। কেননা স্যার বুঝাতে সক্ষম হয়েছেন কোন কাজের উপকারিতা অপকারিতা কি।
একটা সঠিক মানুষ পারে একশো জন মানুষ তৈরি করতে। এটার ম্যানেজমেন্ট হিসেবে আমি সবসময় স্যারকে সেরা বলবো।
একটা টিম বিল্ডআপ করতে হলে ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম স্ট্রং & স্ট্রিট থাকতে হবে।
ধরুন, এখানে একজন ছেলে ও একজন মেয়ে কাজ করছে কিন্তু কেউ কাউকে সম্মান করেন না। তাহলে একটা সময় মানুষ কাজ করার আগ্রহ হারাবে। কেননা আমরা যাই করি না কেনো যথাযথ সম্মান আগে দেওয়া উচিত।
প্রতিটি কম্পানি তাঁর পথচলা সুন্দর রাখতে এমন একজনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন যিনি পার্ফেক্ট।
যেমনটা আমরা বিভিন্ন গ্রুপে দেখে আসছি, একটি গোষ্ঠী কিভাবে পরিচালনা করতে হয়, কখন কোন কাজ করতে হবে সবকিছু ঠান্ডা মাথায় পরিচালনা করে থাকেন তার প্যানেল।

একজন নেতা সবসময় তার টিমকে গড়ে তোলেন পজিটিভ থিন্কিং দিয়ে। যা বাস্তব জীবনে খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

আমিনা আতকিয়া রিতা
ছবিঃ লেখক- আমিনা আতকিয়া রিতা, স্বত্তাধিকারী- অপরাজিতা

Spread the love
খাতুনে জান্নাত আশা
This is Khatun-A-Jannat Asha from Mymensingh, Bangladesh. I am entrepreneur and also a media activist. This is my personal blog website. I am an curious woman who always seek for new knowledge & love to spread it through the writing. That’s why I’ve started this blog. I’ll write here sharing about the knowledge I’ve gained in my life. And main focus of my writing is about E-commerce, Business, Education, Research, Literature, My country & its tradition.
https://khjasha.com

Leave a Reply

Top
%d bloggers like this: