You are here
Home > Basic Knowledge > পার্সোনাল ব্র‍্যান্ডিং

পার্সোনাল ব্র‍্যান্ডিং

Spread the love

What is Personal Branding?

সহজভাবে পার্সোনাল ব্র‍্যান্ডিং বলতে আমি বুঝি, নিজেকে অন্যের কাছে তুলে ধরা, পরিচিত করা।

(একটা পন্যের ব্র‍্যান্ডিং কিভাবে করা হয় আমরা সবাই জানি,

যেমন,

পন্যটা কি?

এর কাজ কি?

এর বিশেষ কোয়ালিটি কি?

এই পন্যটি অন্য পন্য থেকে কেন আলাদা?

কতটা আলাদা? এর দ্বারা মানুষের কি কি সমস্যার সমাধান হতে পারে???

এই প্রশ্নগুলোর উত্তর দেওয়ার মাধ্যমেই মূলত প্রত্যেকটা পন্যের ব্র‍্যান্ডিং করা হয়ে থাকে আর এগুলোকে চটকদার বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে মানুষের মস্তিষ্কে স্থায়ী করার চেষ্টা করা হয়।

তখন মানুষ বার বার ওই একই পন্যের বিজ্ঞাপন দেখতে দেখতে পন্যটার প্রতি আকৃষ্ট হয়ে যায় এবং কিনতে আগ্রহী হয়ে উঠে।)

পার্সোনাল ব্র‍্যান্ডিং এ যাস্ট পন্যের বদলে নিজেকে উপস্থাপন করতে হবে এমনভাবে যেভাবে মানুষের মনে নিজের নামটা কে একেবারে গেঁথে ফেলা যায়।


সেটা কিভাবে??

আমার মতে মানুষের মনে জায়গা করে নেয়ার প্রথম শর্ত হলো বিনয়।

 অবশ্যই আপনাকে বিনয়ী হয়েই নিজেকে ব্র‍্যান্ড হিসেবে মেলে ধরতে হবে, স্টোরি টেলিং পদ্ধতি অনুসরণ করে আপনার জীবনটাকে, আপনার ব্যক্তিত্ত্বটাকে ছোট ছোট গল্প আকারে ফুটিয়ে তুলতে হবে, কারণ মানুষ গল্প পড়তে খুব ভালোবাসে।

আপনাকে বিনয়ের সাথেই প্রমান করতে হবে আপনি কেন সবার থেকে আলাদা, আপনার কোন গুনাগুনের জন্য মানুষ আপনাকে মনে রাখবে!!! 

পার্সোনাল ব্র‍্যান্ডিং এর দ্বিতীয় শর্ত হচ্ছে আন্তরিকতা।

আপনি অন্যদের প্রতি কতটা আন্তরিক তা আপনার কথাবার্তা আর আচরণেই ফুটে উঠবে, আর অনলাইনে আন্তরিকতা ফুটে উঠে কোন পন্যের সুন্দর রিভিউ, সুন্দর কমেন্ট আর রিয়েক্ট এর ব্যবহারের উপর।

পার্সোনাল ব্র‍্যান্ডিং এর তৃতীয় এবং অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ শর্ত হচ্ছে হাসিমাখা মুখ। পৃথিবীতে এই হাসিমুখের মূল্যায়ন কিন্তু অনেক।

সুন্দর একটা হাসি যে কোন কিছু কে উতরে যেতে পারে, যে কোন কিছু জয় করতে পারে, যে কারও মনে স্থায়ী আসন গড়ে নিতে পারে। সো বুঝতেই পারছেন হাসির ক্ষমতা। ‍

সবচেয়ে দ্রুত মানুষের মনে জায়গা করে নেয়া যায় কন্টেন্ট রাইটিং এর মাধ্যমে। এমন কন্টেন্ট ক্রিয়েট করতে হবে, যা পড়ে সবাই ভালো কিছু শিখতে পারবে, নতুন কোনো আইডিয়া পাবে।

লেখার মাধ্যমে পার্সোনাল ব্র‍্যান্ডিং খুব ভালো ভাবে হয়, কারণ লেখা লেখকের ব্যাক্তিত্বের পরিচায়ক।

আর উদ্যোক্তারা কন্টেন্ট রাইটিং এর মাধ্যমে নিজের ব্যক্তিত্ব প্রকাশের পাশাপাশি আকর্ষনীয়ভাবে প্রোডাক্ট প্রেজেন্ট করতে পারে। আর এভাবেই ধীরে ধীরে মানুষের মনে গেঁথে যায়।

একজন সফল উদ্যোক্তা হওয়ার জন্য দরকার হলো,

বিশাল কমিউনিটিতে নিজের যোগ্যতা প্রমাণের মাধ্যমে সর্বোচ্চ বিশ্বস্ততা আর আস্থা অর্জন।


আর উপরোক্ত পার্সোনাল ব্র‍্যান্ডিং এর শর্তগুলো পূরণের মাধ্যমে কোন মানুষ যদি তার ব্র‍্যান্ড প্রতিষ্ঠা করতে সক্ষম হয়, তবে সে খুব সহজেই মানুষের বিশ্বাস আর আস্থা অর্জন করতে পারবে, যা তাকে সফল উদ্যোক্তা হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হতে সাহায্য করবে।

কারণ ওই মানুষটা তখন যাই মানুষের সামনে উপস্থাপন করবে, তাই মানুষ অমৃত ভেবে স্বচ্ছন্দে গ্রহণ করবে কোন দ্বিধা ছাড়াই। এর কারণ, এই বিশ্বাস আর আস্থার জায়গাটা সে তার পার্সোনাল ব্র‍্যান্ডিং এর মাধ্যমে অলরেডি প্রমান করে ফেলেছে।


Spread the love
খাতুনে জান্নাত আশা
This is Khatun-A-Jannat Asha from Mymensingh, Bangladesh. I am entrepreneur and also a media activist. This is my personal blog website. I am an curious woman who always seek for new knowledge & love to spread it through the writing. That’s why I’ve started this blog. I’ll write here sharing about the knowledge I’ve gained in my life. And main focus of my writing is about E-commerce, Business, Education, Research, Literature, My country & its tradition.
https://khjasha.com

2 thoughts on “পার্সোনাল ব্র‍্যান্ডিং

Leave a Reply

Top
%d bloggers like this: